বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
ঢাকা কাস্টমস হাউজ : রাজস্ব কর্মকর্তা খবীরের পাসওয়ার্ড কেলেংকারির ঘটনা ভেস্তে গেছে

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা কাস্টমস হাউজে ডি-মিনিমাইজ/ ডি মেনুফেস্টু শাখায় কর্মরত রাজস্ব কর্মকর্তা খবির উদ্দিনের পাসওয়ার্ড কেলেংকারির ঘটনা তদন্ত ভেস্তে গেছে। তদন্ত রিপোর্ট আলোরমুখ দেখার আগেই তাকে কর্মরত রাখা হয়েছে। জব্দকৃৃত কিছু পণ্য জরিমানা আদায় করে ছাড় দেয়া হয়েছে। কিন্ত পাসওয়ার্ড জালিয়াতির ঘটনায় কারা কারা জড়িত- এখনও তদন্তকারে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়নি। তার (রাজস্ব কর্মকর্তা খবির) ডিউটি অফ করা হয়নি। ঘটনার পরের দিনই তিনি রীতিমত অফিস করছেন। একজন সিএন্ডএফ মালিক জানান, রাজস্ব কর্মকর্তার পাসওয়ার্ড জালিয়াতি ঘটনার পরও তিনি বহাল। একই ঘটনায় রাজস্ব কর্মকর্তা হালিমকে সাসপেন্ড করা হলেও খবির উদ্দিন বহাল।
এ দিকে রাজস্ব কর্মকর্তা খবির উদ্দিন ভুইয়ার সাথে সরাসরি কথা বলতে তার অফিসে গিয়ে দেখা যায় ২০-২৫ জন সিএন্ডএফ সরকার তার রুমের ভিতর পেপার নিয়ে তাকে ঘিরে রেখেছে। তার সাথে কাজ করে হাউজের ইলেকট্রিশিয়ান মনজুরুলকে খবর দেয়া হলেও আসেনি। মোবাইলে ফোন করা হলেও প্রথমে লাইন কেটে দিয়ে পরে ফোন করে ফোনটি রাজস্ব কর্মকর্তা খবির উদ্দিনকে দেয়া হয়। রাজস্ব কর্মকর্তা খবির উদ্দিন জানান, পাসওয়ার্ড জালিয়াতির ব্যাপারে আমি কিছু জানি না।
সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে আগে পাসওয়ার্ড ব্যবসায়ীদের দিতো, ঘটনা ঘটার পর এখন আর ব্যবসায়ীদের হতে দিচ্ছেনৃ না।
প্রশ্ন ওঠেছে একজন ইলেকট্রিশিয়ান কেন রাজস্ব সংক্রান্ত পেপারসে একজন রাজস্ব কর্মকর্তার সাথে তার রুমে কাজ করে? তার কাজ হলো হাউজে কোন ইলেকট্রিকাল সংক্রান্ত সমস্যা হলে তা সমাধান করা। কাস্টমস সরকাররা বলে বেড়ান ইলেকট্রিশিয়ান মনজুর রাজস্ব কর্মকর্তা খবির উদ্দিনের রুমে থেকে স্পীডমানি আদায় করে থাকে।
কুরিয়ারে বাড়ছে রাজস্ব, পাচারকারিরা সটকে পড়েছে: ঢাকা কাস্টমস হাউজের কুরিয়ার শুল্কাায়নে দিন দিন রাজস্ব বাড়ছে। প্রতিদিনই দুনম্বরি পেপারসে পণ্য খালাসের সময় তা আটক করে জব্দ করা হচ্ছে, এসিএস, এসসিএস, ফারদারসহ অন্যান্য খাচা খাচা তালাবদ্ধ করা হয়েছে, আবার খুলে দেয়া হয়েছে।
মুখলেস বহিষ্কার : ভাগিনা মুখলেসকে কুরিয়ারে প্রবেশে নিষেধ্ঙা জারি করা হয়েছে। কুরিয়ার এলাকায় এলে তাকে আইনশৃংখলা বাহিনীকে গ্রেফতার করার আদেশ দেয়া হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা জানান। ভাগিনা মুখলেস নাকি পলাতক বলে ব্যবসায়ীরা জানান। কিন্ত নিষিদ্ধ বাকি ১৬ জন দিব্যি ব্যবসা করছেন। ভাগিনার মামা রাইদুলও বহাল।

এই ওয়েবসাইটের যে কোনো লেখা বা ছবি পুনঃপ্রকাশের ক্ষেত্রে ঋন স্বীকার বাঞ্চনীয় ।