বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ০৯:২৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
শাহজালালে কাস্টমস ভ্যালুয়েবল গুদাম থেকে ১৫০ ভরি স্বর্ন গায়েব: গুদাম কর্মকর্তা সাহেদের বদলি স্থগিত: ৭দিন ধরে এয়ারফ্রেইটে কমার্শিয়াল পণ্য খালাস বন্ধ, সরকারের রাজস্ব ক্ষতি কয়েক হাজার কোটি টাকা

স্টাফ রিপোর্টার : শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাস্টমসের মূল্যবান গুদাম থেকে ৬টি ডিএম-এর বিপরীতে প্রায় ১৫০ ভরি সোনা হাওয়া হয়ে গেছে। এ ঘটনায় গুদাম কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম সাহেদের বদলি আদেশ স্থগিত করা হয়েছে। দৈনিক কালবেলায় গত ২২ আগস্ট এ নিয়ে রিপোর্টার ইব্রাহিম আলির একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। যে সব ডিএম-এর বিপরীতে সোনা হাওয়া হয়ে গেছে সে সব ডিএম নম্বর হচ্ছে: ২০২৩০৮৫৩৬০৩, ২০২৩০৮৫৩৬০৬, ২০২৩০৮৫৩৬১৪, ২০২৩০৮৫৩৬১৮ , ২০২৩০৮৫৩৬১৯, ২০২৩০৮৫৩৬২১।
তবে ঢাকা কাস্টমস হাউজ কমিশনার নূরুল হুদা আজাদ কালবেলাকে বলেছেন, কোন ডিএম নম্বর হয়তো দুইবার লিপিবদ্ধ করা হয়েছে।
এ দিকে ঢাকা কাস্টমস হাউজে এয়ারফ্রেইটে আমদানি শাখায় গত ৭ দিন ধরে কমার্শিয়াল পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে বলে এসটি রায়হান জানান।পন্যের শুল্ক বৃদ্ধি করায় এর সাথে সংশ্লিস্ট ব্যবসায়িরা পণ্য খালাস বন্ধ করে দিয়েছে। এতে সরকারের গত ৭ দিনে কয়েক হাজার কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়। সংশ্লিষ্ট কয়েকটি পণ্যের এসএস কোড পরিবর্তন করে পণ্য শুল্ক হার বৃদ্ধি করা হয়েছে বলেও চট্রগ্রাম কাস্টমস হাউজ কমিশনার ফাইজুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান।
এয়ারফ্রেইটে ২ জন ক্যাডার কর্মকর্তার পদায়ন নিয়েও কথা ওঠেছে। যেখানে একজন ক্যাডার কর্মকর্তাই যথেষ্ট সেখানে ২ জন কেন- এ নিয়ে ব্যবসায়িরা কানাঘোষ করছে। পণ্য খালাস নিয়ে হাউজ কমিশনারের সাথে ব্যবসায়িদের দেন-দরবার চলছে। আগামি ২৭ আগস্ট পণ্য খালাস স্বাভাবিক হয়ে আসবে বলে জানা যায়।
বহিরাগত মাসুদের চাদাবাজি : ঢাকা কাস্টমস হাউজে আই-৭-এ বসে কাস্টমস কার্মকর্তাদের নামে মাসুদ নামের এক বহিরাগত ও তার আত্মীয় রীতিমত চাদাবাজি করছে। সিএন্ডএফ সরকারদের থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে ফাইল প্রতি শত শত টাকা টাকা। পাশে বসে আছেন সংশিালষ্ট কয়েক এআরও। এ চিত্র নিত্যদিনের।

এই ওয়েবসাইটের যে কোনো লেখা বা ছবি পুনঃপ্রকাশের ক্ষেত্রে ঋন স্বীকার বাঞ্চনীয় ।