বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ০৯:৪১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
সিএএবি : ১ কার্যদিবসেই ডিডি রাশিদার তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ! ডিডি রাশিদার এসিআর দেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

স্টাফ রিপোর্টার : অবিশ্বাস্য হলেও সত্য যে, বাংলাদেশ সিভিল এভিয়েশন অথরিিটতে ১০ নয়- ১ কার্যদিবসেই তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। ১২ জুন ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ১৩ জুন তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়। প্রশ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে ১ দিনের মধ্যে কিভাবে তদন্ত সম্পন্ন করা হলো, আর কার স্বার্থেই বা ১ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হলো। এ ক্ষেত্রে অভিযুক্তকে সেইভ করা হচ্ছে কিনা- তাও অনেককে ভাবিয়ে তুলেছে। যারা ওই অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ৫ টি গুরুতর অভিযোগ করেন তাদের বক্তব্য নেয়া হয়েছে কি?
সিএএবিতে কর্মরত উপ-পরিচালক ( ট্রেনিং এন্ড সার্টিফিকেশন) রাশিদা সুলতানার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তদন্ত করার জন্য গত ২৬ মে সিএএবির পরিচালক (প্রশাসন) আবু সালে মোহাম্মদ মুছা জংগিকে প্রধান করে এবং উপ-পরিচালক স্টোরস/ সেমসু করিম মোল্লাকে সদস্য করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। অভিযুক্তের আপত্তির পর সেই তদন্ত কমিটি বাতিল করা হয়।
আবার নতুন করে গত ১২ জুন সিএএবির সদস্য এটিএম এয়ার কমোডর একেএম জিয়াউল হককে প্রধান করে, পরিচালক সিএনএস মো. মাহাবুবুর রহমান এবং উপ-পরিচালক/পিএসটু চেয়ারম্যান সোহেল মোহাম্মদ কামরুজ্জামানকে সদস্য করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি গঠনের একদিন পরই অর্থাৎ ১৩ জুন তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।
ডিডি রাশিদার এসিআর দেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী : সিএএবিতে সদস্য নিরাপত্তার অধীনে কর্মরত উপ-পরিচালক ( ট্রেনিং এন্ড সার্টিফিকেশন) রাশিদার সুলতানার বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন( এসিআর) দেয়ার নিয়ম তিনি যার অধীনে চাকরি করেন সেই কর্মকর্তার। কিন্ত সিএএবিতে ঘটেছে এর উল্টোকান্ড।গত ০৬-০৫-২০২৪ তারিখে ডিডি রাশিদার এসিআর দিয়েছেন সিএএবির সাবেক সদস্য (প্রশাসন), বর্তমানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা , সরকারের অতিরিক্ত সচিব মো. মিজানুর রহমান । প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার স্বাক্ষর করা সেই এসিআর আবার সিএএবির চেয়ারম্যান বরাবর ডিএসসিসির প্যাডে দাপ্তরিক চিঠিতে পাঠানো হয়েছে। পরিচালক এইচআর দপ্তর তা রিসিভ করেছে এবং একটি ডায়রী হয়েছে, ডায়রী নম্বর-৫০ তারিখ: ১৪-০৫-২০২৪ ইং। সিএএবির পরিচালক মানব সম্পদকে সেই দাপ্তরিক চিঠির অনুলিপি প্রদান করা হয়েছে।সংযুক্ত করা হয়েছে ০৪ ফর্দ গোপনীয় প্রতিবেদন।

এই ওয়েবসাইটের যে কোনো লেখা বা ছবি পুনঃপ্রকাশের ক্ষেত্রে ঋন স্বীকার বাঞ্চনীয় ।