শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৮:২৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ:
ঢাকা কাস্টমস হাউজ : রাজস্ব কর্মকর্তা আসিফ আহমদের এসেসমেন্ট রিপোর্টে মিথ্যা ঘোষণায় কোটি টাকার ট্যাক্স ফাকি দিয়ে পণ্য খালাসের চেষ্টা : তদন্ত কমিটি, বিভাগীয় মামলা

বিশেষ সংবাদদাতা : জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীন ঢাকা কাস্টমস হাউজের আমদানি শাখার ১ নং ডেলিভারি গেট দিয়ে রাজস্ব কর্মকর্তা আফিস আহমদের এসেসমেন্ট রিপোর্টে প্রায় কোটি টাকার ট্যাক্স ফাকি দিয়ে ইলেকট্রিক পণ্য খালাস প্রক্রিয়া রুখে দিয়েছে প্রিভেনটিভ টিম।
এ ব্যাপারে ঢাকা কাস্টমস হাউজের অতিরিক্ত কমিশনার-২ তাসনিমুর রহমানের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে।
এ ঘটনায় প্রিভেনটিভ টিমের সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা জুন্নন বাদি হয়ে একটি বিভাগীয় মামলা দায়ের করেছেন।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে প্রিভেনটিম টিমের সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা জুন্নন জানান, মিথ্যা ঘোষণায় আমদানিকৃত পণ্য ট্যাক্স ফাকি দিয়ে খালাসের সময় পণ্যের চালানটি জব্দ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বাদি সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা  আবুল বাশার ।

এ ঘটনায় এডিসি-২-এর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত টিম গঠিত হয়েছে।
এ ব্যাপারে রাজস্ব কর্মকর্তা আসিফ আহমদ জানান, পণ্যের ঘোষণায় ছিল জেনারেটিং সেট। আমি এসেসমেন্টে-ও জেনারেটিং সেট-ই পেয়েছি। সে হিসাবে পণ্যেও ট্যাক্স নির্ধারণ করেছি।
ঢাকা কাস্টমস হাউজ সূত্রে জানা গেছে, পণ্যের ঘোষণায় ছিল জেনারেটিং সেট। কিন্ত কমিশনারের এক্সামিন টিম সদস্যরা পুনরায় পণ্যের এক্সামিন করে জেনারেটিং পার্চ-এর প্যাকেট খুজে পায়। ওই এক্সামিন রিপোর্ট কমিশানর দপ্তরে জমা দেয়া হয়েছে। সে অনুসারে পণ্যের পুনরায় এসেসমেন্ট হয়েছে। পুন: এসেসমেন্টে প্রায় কোটি টাকার ট্যাক্স ফাকির বিষয়টি উৎঘাটিত হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। এডিসি-২-এর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি বিষয়টি তদন্ত করছে। এখনও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়নি।

এই ওয়েবসাইটের যে কোনো লেখা বা ছবি পুনঃপ্রকাশের ক্ষেত্রে ঋন স্বীকার বাঞ্চনীয় ।